ICT Events

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদ্যাপন

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের অবদানকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণের মধ্য দিয়ে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবারের মত এবারও উদ্যাপন করা হয়েছে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৫। দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় উদ্যাপনের লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয় দিবস উদ্যাপন কমিটির পক্ষ থেকে গ্রহণ করা হয় বিভিন্ন কর্মসূচী। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল জাতীয় পতাকা উত্তোলন, র‌্যালি, পুষ্পার্ঘ অর্পণ, মুক্ত আলোচনা সভা, দোয়া ও মুনাজাত, প্রীতি প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী।

সকাল ৯টায় ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. মো: আবুল হোসেন প্রশাসনিক ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। এরপর তাঁর নেতৃত্বে একটি র‌্যালি ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। তারপর বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে উপাচার্য মহোদয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন করেন। ক্রমেই সকলের আগমন ঘটে শহীদ মিনার চত্ত্বরে; ফুলে ফুলে ভরে উঠে শহীদ মিনার বেদি। শহীদদের উদ্দেশে জাতীয় দিবস উদ্যাপন কমিটি, নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতি, অফিসার্স এসোসিয়েশন, বিভিন্ন বিভাগ, হল প্রভোস্ট ও কর্মচারীবৃন্দ সহ বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় দিবস উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক ও ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক জনাব মো: নাসির উদ্দিন এর সভাপতিত্বে বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় মুক্ত আলোচনা সভা। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. মো: আবুল হোসেন, বিশেষ অতিথি হিসেবে রেজিস্ট্রার প্রফেসর মো: মমিনুল হক, ভাষা শহীদ আবদুস সালাম হলের প্রভোস্ট ড. মুহাম্মদ ইউসুফ মিঞা, হযরত বিবি খাদিজা হলের ভারপ্রাপ্ত প্রভোস্ট জনাব মো: রফিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

DSC_0303

অতিথিবৃন্দ ছাড়াও অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি জনাব তারেক মো: রাশেদ উদ্দিন, কোস্টাল এগ্রিকালচার বিভাগের প্রভাষক জনাব মো: সোহরাব হোসেন, জনাব কাওসার হোসেন, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জনাব মুহাম্মদ মুশফিকুর রহমান প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং ছাত্রছাত্রীগণ অংশগ্রহণ করেন। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় দিবস উদ্যাপন কমিটির সদস্য জনাব পলাশ কর্মকার।

বক্তাগণ বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে আমরা পাকিস্তানীদের সকল ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে ১৯৭১ সালে সশস্র সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ি এবং দীর্ঘ নয় মাসের রক্তস্নাত পথ বেয়ে ত্রিশ লক্ষ তাজা প্রাণ ও দুই লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রম লুন্ঠনের মাধ্যমে আমরা অর্জন করি মহান বিজয়। তাঁরা বলেন, বহু কাঙ্খিত এ স্বাধীনতা অর্জনের পরও স্বাধীনতার সত্যিকার সুফল এখনও আমরা লাভ করতে পারিনি কিছু কুচক্রী মহলের ষড়যন্ত্রের কারণে। তাই আমাদের উচিত স্বাধীনতা বিরোধীদের সকল ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে দেশের স্বাধীনতা রক্ষার কাজে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে আসা। বক্তাগণ স্বাধীনতার বিরোধীতাকারী যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের অগ্রগতিতে সরকারকে ধন্যবাদ জানান এবং অসমাপ্ত কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার দাবি জানান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যের শুরুতে ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য মহোদয় উপস্থিত সকলকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন, এ দেশ স্বাধীন হয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের একক নেতৃত্বে। তাঁর নেতৃত্বে সেদিন দেশের মুক্ত চিন্তা ও সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী আপামর জনতা একতাবদ্ধ হয়েছিল। এ স্বাধীনতার সুফল পেতে এবং দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন সহ দেশের সার্বিক উন্নয়নে আজকে আমাদের অসাম্প্রদায়িক ও স্বাধীনতার স্বপক্ষের সকল শক্তিকে এক হতে হবে। তিনি বলেন, বড়ই দু:খের বিষয় স্বাধীনতা বিরোধীদের বিচার নিয়ে আমরা আজ বিভক্ত; তিনি সকলকে একতাবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, তাহলেই আমরা এদেশকে একুশ শতকের উপযোগী করে গড়ে তুলতে পারবো। মাননীয় উপাচার্য সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিয়ে ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের ও ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে বিশ্বের বুকে পরিচিত করতে সকলের স্ব স্ব অবস্থান থেকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। উপাচার্য মহোদয় জাতির জনক ও স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মদানকারী সকলের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন।

সভাপতির বক্তব্যে জাতীয় দিবস উদ্যাপন কমিটির সভাপতি ও ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক জনাব মো: নাসির উদ্দিন সকলকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানান। তিনি জাতির জনক এবং মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী সকল বীর শহীদদের অবদানকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন এবং বলেন, আমাদের সকলকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস চর্চা এবং তা উপলব্ধি করতে হবে। এটি করতে পারলেই আমরা সত্যিকার স্বাধীনতার ফল ভোগ করতে পারব। পরিশেষে অনুষ্ঠান আয়োজনের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে তিনি আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া করা হয়। দোয়া পরিচালনা করেন কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মো: গিয়াস উদ্দিন। মুক্ত আলোচনা সভাটি সঞ্চালনা করেন এফআইএমএস বিভাগের প্রভাষক জনাব মাহাবুবুর রহমান ও ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক জনাব শিরিন আক্তার পপি। দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত হয় প্রীতি প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী সভা।

Contact Us

Department of Information & Communication Engineering(ICE)

Noakhali Science & Technology University

Sonapur-3814, Noakhali, Bangladesh

Tel: +609 549 2133

Fax: +609 549 2144

Email: head@icenstu.edu.bd

Our Location

NSTU Campus Map

Coordinate:
22.794437,91.100707